দর্শকের হাতে ‘চার-ছক্কা’ নিষিদ্ধ করল ভারত

10
Print Friendly, PDF & Email

স্পোর্টস ডেস্ক রিপোর্ট:
ভারত ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু হচ্ছে আগামীকাল রোববার (৫ জানুয়ারি)। গুয়াহাটির ভূপেন হাজারিকা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিতব্য আগামীকালের ম্যাচে মাঠে কোনো ধরনের পোস্টার, ব্যানার নেয়া নিষিদ্ধ করেছে আসাম ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন (এসিএ)। শুধু পোস্টার নয়, ক্রিকেট মাঠের অতি পরিচিত ‘চার’ এবং ‘ছক্কা’ প্ল্যাকার্ডও কাল মাঠে নিতে দেয়া হবে না বলে জানিয়েছে তারা।

তবে এসিএর দাবি, এ নিষেধাজ্ঞার সঙ্গে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের কোনো সম্পর্ক নেই।

এসিএর সাধারণ সম্পাদক দেবজিত সাইকিয়া জানিয়েছেন, স্টেডিয়ামে পোস্টার-ব্যানার বা চার-ছক্কা প্ল্যাকার্ড নিষিদ্ধের কারণ সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নয়, অনুমতি ছাড়া কেউ যেন বিজ্ঞাপন দেখাতে না পারে সেটা নিশ্চিত করতেই এটা করা হয়েছে।

শুক্রবার (৩ জানুয়ারি) এ কথা জানান সাইকিয়া। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন গুয়াহাটির পুলিশ কমিশনার এমপি গুপ্ত।
সাইকিয়া ২০১৭ সালে গুয়াহাটিতে এক ম্যাচ শেষে অস্ট্রেলিয়ার বাসে ঢিল ছোড়ার ঘটনার কথা মনে করিয়ে দিয়ে বলেন, এ কারণেই নিরাপত্তায় জোর দিচ্ছেন তারা। তিনি বলেন, সবাই এ নিয়ে চিন্তিত, শুধু আসামের মানুষ নয়। এটা আন্তর্জাতিক একটা ব্যাপার এবং কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে।

আর পোস্টার ও ব্যানারের ব্যাপারে সাইকিয়া বলেছেন, ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) ও একটি বেভারেজ প্রতিষ্ঠানের মধ্যকার চুক্তি শেষ হয়ে যাওয়াতেই প্ল্যাকার্ড নিয়ে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এসিএকে নাকি এক সপ্তাহ আগেই এটা জানানো হয়েছে।

তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বিসিসিআই কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ৪ ও ৬ প্ল্যাকার্ড সিরিজের স্পনসররা দেয় এবং বোর্ড প্ল্যাকার্ডের নিষিদ্ধের ব্যাপারে কিছু জানে না।

তিনি আরও বলেন, বিসিসিআই এ ব্যাপারে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ যা বলবে তার পক্ষেই থাকবে।
বিসিসিআইয়ের প্রতিনিধি মামুন মজুমদার আশা প্রকাশ করেন, ৩৯ হাজার দর্শক সবাই খুব ভালো আচরণ দেখাবেন কারণ বাইরের মানুষ, অন্য রাজ্যের মানুষ তাদের দেখবেন এবং বলবেন দর্শকেরা সবাই ভালো আচরণ করে।

বিতর্কিত সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনটি নিয়ে বেশ ক্ষুব্ধ আসামের মানুষ। এ নিয়ে বিক্ষোভকারী ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সংঘর্ষে আসামে অন্তত চারজনের মৃত্যু হয়েছে। কারফিউ জারি করা হয়েছে, বন্ধ করে দেয়া হয়েছে ইন্টারনেট সেবাও।