সিটি নির্বাচন মাঠ কাঁপাতে চায় বিএনপি, বিজয় দেখছে আ.লীগ

10
Print Friendly, PDF & Email

ঋত্বিক তারিক, ঢাকা:
ঢাকা দুই সিটিতে মাঠের লড়াই শুরুর আগে প্রার্থীরা নেমেছেন কথার লড়াইয়ে। আসছে নির্বাচনে নৌকা আর ধানের শীষের যুদ্ধে যার যার অবস্থান থেকে নিজেদের এগিয়ে রাখছেন প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা। তাছাড়া কোণঠাসা বিএনপি নতুন পরিকল্পনা সাজাচ্ছে এই নির্বাচন ঘিরে। আর আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা বলছেন, উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় ভোটারদের আস্থা থাকবে নৌকায়।

জাতীয় নির্বাচনের এক বছর ঘুরতে না ঘুরতেই আবার নির্বাচনের মাঠে মুখোমুখি নৌকা ও ধানের শীষ। উত্তরে ছয়জন আর দক্ষিণে সাতজন মেয়র প্রার্থী থাকলেও স্পট লাইট আতিক-তাবিথ আর তাপস-ইশরাকে।
গত এক দশকের রাজনীতিতে অনেকটাই ব্যাকফুটে থাকা বিএনপির প্রার্থীরা বলছেন, এ নির্বাচনে দিয়েই আবারো মাঠ কাঁপাবেন তারা।

নৌকা ধানের শীষের এবারের লড়াই এ নিজের জয়ই দেখছেন তারা।

এ প্রসঙ্গে ঢাকা দক্ষিণে বিএনপির মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন বলেন, এটি ধানের শীষের নির্বাচন। নৌকার সঙ্গে ধানের শীষ লড়বে।
ঢাকা উত্তরে বিএনপির আরেক মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল বলেন, ভয় দূর করে মনে সাহস নিয়ে ভোট দিতে যেতে হবে। আমরা সবাই ভোট দেব। জনগণকে নিয়েই বিজয় আদায় করব।

তবে বর্তমান সরকারের ১০ বছরের উন্নয়নের ধারাবাহিকতায় বিকল্প নেই নৌকার, ভোটাররা তার জবাব ৩০ জানুয়ারি ব্যালটেই দেবে এমনটাই দাবি ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীদের।
আর সুযোগে পেলে নিজ নিজ এলাকার উন্নয়নের গতি আরও বাড়বে বলেও জানালেন তারা।

ঢাকা উত্তরে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম বলেন, জনগণকে অনুরোধ করব আপনারা আপনাদের পছন্দের প্রার্থীকে বিজয়ী করুন। জনগণ আওয়ামী লীগকেই ভোট দেবে।

ঢাকা দক্ষিণে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, প্রধানমন্ত্রী ঢাকা সিটিকে দুই ভাগে বিভক্ত করেছেন। যাতে মানুষ সুবিধা পায়। ৩০ বছর মেয়াদি পরিকল্পনা করব, যাতে সবাই নাগরিক সুবিধা পায়।

ঢাকা উত্তরে ভোটার ৩০ লাখ ৩৫ হাজার ৬১১ জন। আর দক্ষিণে ২৩ লাখ ৬৭ হাজার ৪৮৮ জন।