দক্ষিণ সিটিতে তাপস-ইশরাকসহ সবার মনোনয়নপত্র বৈধ

13
Print Friendly, PDF & Email

স্পেশাল করসপন্ডেন্ট, ঢাকা:
ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন (ডিএসসিসি) নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী শেখ ফজলে নূর তাপস এবং বিএনপির প্রার্থী ইশরাক হোসেনসহ সবার মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

বৃহস্পতিবার (২ জানুয়ারি) গোপীবাগের মুক্তিযোদ্ধা সাদেক হোসেন খোকা কমিউনিটি সেন্টারে যাচাই-বাছাই শেষে এ ঘোষণা দেন রিটার্নিং অফিসার মো. আবদুল বাতেন।
শেখ ফজলে নূর তাপস ও ইশরাক হোসেন ছাড়া আরও যাদের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে তারা হলেন, বাংলাদেশ কংগ্রেসের আক্তারুজ্জামান, এনপিপির বাহারানে সুলতান, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আব্দুর রহমান, জাতীয় পার্টির সাইফুদ্দিন আহমেদ মিলন ও গণফ্রন্টের আব্দুস সামাদ সুজন।

এরপরই একইসঙ্গে ভোট চান দক্ষিণের হেভিওয়েট দুই প্রার্থী তাপস ও ইশরাক।

ইসির ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ছিল ৩১ ডিসেম্বর, মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই আজ (২ জানুয়ারি) হচ্ছে। প্রার্থিতা প্রত্যাহার ৯ জানুয়ারি, প্রতীক বরাদ্দ হবে ১০ জানুয়ারি। আর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে ৩০ জানুয়ারি।

রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল কর্তৃপক্ষের কাছে আপিল করা যাবে আগামী ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত। আপিল কর্তৃপক্ষ হিসেবে ঢাকা বিভাগীয় কমিশনারকে নিয়োগ করেছে নির্বাচন কমিশন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটিতে ২৫টি কাউন্সিলর পদের বিপরীতে ৪০৭ জন ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলদের ২৫টি পদের বিপরীতে ১০২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
তবে উত্তর সিটির ৭ জন প্রার্থীর মধ্যে অবৈধ হয়েছেন জাতীয় পার্টি মেয়রপ্রার্থী জিএম কামরুল ইসলাম।

সকাল ১০টা থেকে সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে মেয়র ও কাউন্সিলর পদে মনোনয়নপত্র যাচাই বাছাই শুরু হয়। শেষে কর্মকর্তারা জানান, আগামী ৩ দিনের মধ্যে বাতিল হওয়া প্রার্থিরা আবেদন করতে পারবেন। নির্বাচন যেন সংঘর্ষে রূপ না নেয় সেদিকে খেয়াল রাখতে প্রার্থীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে কর্মকর্তারা আরও বলেন, আচরণবিধি না মানলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এছাড়ও ঢাকা উত্তর সিটির রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার চূড়ান্ত অনুমোদন পেয়ে একই সঙ্গে সাংবাদিকদের মুখোমুখি সিটি নির্বাচনে বড় দুই দলের নতুন দুই মেয়র পদপ্রার্থী। নির্বাচনী আচরণবিধি মেনে চলার অঙ্গীকারের পাশাপাশি ভোটারদের ভোটাধিকার প্রয়োগের অনুরোধ ছিল হেভিওয়েট দুই প্রার্থী আতিক ও তাবিতের মুখে।