বুধবার থেকে মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু করছে আ.লীগ বিএনপি ও জাপা

12
Print Friendly, PDF & Email

স্পেশাল করসপন্ডেন্ট, ঢাকা:
নির্বাচন কমিশনের ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ৩০ জানুয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী প্রার্থীদের মধ্যে আলাদা আলাদাভাবে বুধবার (২৫ ডিসেম্বর) থেকে দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রি শুরু করবে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টি।

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে আওয়ামী লীগ থেকে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন প্রত্যাশীরা বুধবার থেকে শুক্রবার পর্যন্ত মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করতে পারবেন। ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে এ মনোনয়ন ফরম পাওয়া যাবে। আগামী শুক্রবারের মধ্যেই এই মনোনয়ন ফরম জমা দিতে হবে। এই নির্বাচনে মনোনয়ন দাখিলের শেষ তারিখ আগামী ৩১ ডিসেম্বর। আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানানো হয়েছে।

ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশ নেয়ার কথা ঘোষণা করে সোমবার সন্ধ্যায় গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আমরা সকল স্থানীয় সরকার নির্বাচনে অংশ নেব, এটা আমাদের আগের সিদ্ধান্ত ছিল। সেই হিসেবে দুই সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আমাদের দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের জন্য ২৬ ডিসেম্বর মনোনয়ন ফরম বিতরণ করা হবে। এদিন সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে মনোনয়ন ফরম নিতে হবে। ২৭ ডিসেম্বর ৪টার মধ্যে মনোনয়ন ফরম জমা দিতে হবে। এরপর নীতি-নীতিনির্ধারকরা যাচাই-বাছাই করে দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করবেন।

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের সহকারী প্রেস সেক্রেটারি খন্দকার দেলোয়ার হোসেন জ্বালালী জানিয়েছেন, জাতীয় পার্টিও দুই ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলের সম্ভাব্য প্রার্থীদের কাছে বুধবার থেকে সকাল ১০টা থেকে দলীয় মনোনয়ন ফরম বিক্রি করবে। জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয় থেকে এ ফরম বিক্রি হবে। আগ্রহী প্রার্থীদের হাতে মনোনয়ন ফরম তুলে দেবেন দলটির চেয়ারম্যান জিএম কাদের।

আগামী শনিবার প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সভা রয়েছে। সেই সভাতেই এই দুই সিটিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত করা হবে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আগামী ২৫, ২৬ ও ২৭ ডিসেম্বর যথাক্রমে বুধ, বৃহস্পতি ও শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয় থেকে মনোনয়নের আবেদনপত্র সংগ্রহ করতে হবে। আবেদনপত্র জমা দেয়া যাবে ২৭ ডিসেম্বর বিকাল ৫টা পর্যন্ত। শনিবার সন্ধ্যা ৬টায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার বোর্ডের এক সভা অনুষ্ঠিত হবে। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা এতে সভাপতিত্ব করবেন। দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সংশ্লিষ্ট সবাইকে যথাসময়ে সভায় উপস্থিত থাকতে অনুরোধ জানিয়েছেন।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে কাউন্সিলর পদে বিএনপি দলীয় মনোনয়ন ফরম বুধবার ও বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত বিতরণ ও গ্রহণ করা হবে। মঙ্গলবার (২৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় ঢাকা মহানগর বিএনপি দক্ষিণের দফতর সম্পাদক সাইদুর রহমান মিন্টু পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে আগ্রহী বিএনপির প্রার্থীদেরকে যথাসময়ে নয়াপল্টনে মহানগর বিএনপি কার্যালয় থেকে (ভাসানী ভবন) দলীয় মনোনয়ন ফরম উত্তোলন ও জমাদানের জন্য অনুরোধ করা হলো।

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপি দপ্তর সম্পাদক এবিএমএ রাজ্জাক পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, সিটি করপোরেশন উত্তর নির্বাচনে কাউন্সিলর পদের বিএনপি দলীয় মনোনয়ন ফরম বুধবার ও বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত বিতরণ ও গ্রহণ করা হবে। কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে আগ্রহী বিএনপির প্রার্থীদেরকে যথাসময়ে নয়াপল্টনে মহানগর বিএনপি কার্যালয় থেকে (ভাসানী ভবন) দলীয় মনোনয়ন ফরম উত্তোলন ও জমাদানের জন্য অনুরোধ করা হলো।

প্রসঙ্গত, গত রোববার নির্বাচন কমিশনের কমিশন সভা শেষে দুই সিটি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নুরুল হুদা। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, আগামী ৩০ জানুয়ারি ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে মনোনয়ন দাখিলের শেষ তারিখ আগামী ৩১ ডিসেম্বর। নির্বাচনে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই চলবে ২ জানুয়ারি পর্যন্ত। প্রার্থীরা ৯ জানুয়ারি পর্যন্ত মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করতে পারবেন।

সিইসি জানান, দুই সিটিতেই সব কেন্দ্রে ভোট নেয়া হবে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহার করে। ভোটগ্রহণের সময় সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। আর দুই সিটির বর্তমান মেয়ররা এই নির্বাচনে অংশ নিতে চাইলে তাদের নিজ নিজ পদ থেকে পদত্যাগ করতে হবে।