বোয়িং এর প্রধান বরখাস্ত

11
Print Friendly, PDF & Email

নিউজবিটোয়েন্টিফোর অনলাইন রিপোর্টঃ
বোয়িং এর প্রধান মুইলেনবার্গ বিশ্বস্ততা হারানোর কারনে বরখাস্ত হয়েছেন।

সম্প্রতি দু’টি ভয়াবহ দুর্ঘটনার পর বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স উড়োজাহাজের ফ্লাইট বন্ধ হয়ে যাওয়া এবং উৎপাদনও বন্ধ হওয়ায় সংস্থাটির প্রধান নির্বাহী ডেনিস মুইলেনবার্গকে বরখাস্ত করেছে প্রতিষ্ঠানটি। সোমবার তাকে বরখাস্ত করে কোম্পানির নতুন নির্বাহী এবং প্রেসিডেন্ট পদে নির্বাচিত হয়েছেন ডেভিড ক্যালহুন। তিনি ২০০৯ সাল থেকে বোয়িংয়ের বোর্ড অব ডিরেক্টরস’র সদস্য ছিলেন। তবে বর্তমান চেয়ারম্যান হিসেবে আছেন।
ধারণা করা হচ্ছে, ৭৩৭ ম্যাক্স উড়োজাহাজের দু’টি ঘটনায় সৃষ্ট পরিস্থিতিতে জনগণের ভরসা বোয়িংয়ের ওপর অনেকটাই কমে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে কোম্পানির সুনাম ফেরানোর চেষ্টায় এ পরিবর্তন জরুরি ছিল বলে জানিয়েছে বোয়িং। মুইলেনবার্গ তার বিশ্বাসযোগ্যতা হারিয়েছেন বলে তাকে বরখাস্ত করা ছাড়া উপায় ছিল না জানিয়ে নতুন করে পরিপূর্ণ স্বচ্ছতার সঙ্গে কাজ করার কথা বলেছে প্রতিষ্ঠানটি।
৭৩৭ ম্যাক্স দুর্ঘটনায় নিহতদের স্বজনরা এই বরখাস্তের সিদ্ধান্তটিকে স্বাগত জানিয়েছে বলেছেন, কাজটি আরও অনেক আগেই করা উচিত ছিল। কিন্তু মুইলেনবার্গকে সরিয়ে বহুদিন পুরনো আরেকজন বোর্ড মেম্বারকে সেই পদে আনার সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন তারা।
গত মার্চে ইথিওপিয়ান এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট ৩০২ বিধ্বস্তের ঘটনায় পল জোরোগে তার স্ত্রী, তিন সন্তান এবং শাশুড়িকে হারিয়েছিলেন। বিবিসি’কে তিনি বলেন, ডেনিস মুইলেনবার্গের পদচ্যুতি সঠিক পথের দিকে নেয়া একটি ধাপ। কিন্তু এটাও স্পষ্ট যে বোয়িং কোম্পানির কর্পোরেট ব্যবস্থা পুনর্গঠন করা দরকার।’ ক্যালহুন প্রধান নির্বাহী ও প্রেসিডেন্ট পদের জন্য ঠিক নন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
ওই একই ফ্লাইটে বাবাকে হারানো জিপোরাহ কুরিয়া বলেছেন, মুইলেনবার্গকে আরও অনেক আগেই সরানো দরকার ছিল। কিন্তু উড়োজাহাজ দুর্ঘটনাগুলোর দায় তার একার না। ‘আমি মনে করি নতুন যাকে প্রধান নির্বাহী বানানো হচ্ছে তিনিসহ আরও অনেকেরই পদত্যাগ করা উচিত ছিল,’ বলেন তিনি।
মাত্র পাঁচ মাসের মাথায় প্রথম ইন্দোনেশিয়া ও পরে ইথিওপিয়ায় মারাত্মক দু’টি দুর্ঘটনার পর উড়োজাহাজ নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়ে। মার্চে ইথিওপিয়ার ঘটনার পর ৭৩৭ ম্যাক্স মডেলটি বিশ্বজুড়ে ব্যবহার স্থগিত করে দেয়া হয়।
কোম্পানিটি প্রাণপণ চেষ্টা করছে ত্রুটি সারিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বিক্রি হওয়া এই জেট প্লেন মডেলটি চলতি বছর শেষ হওয়ার আগেই আবারও কাজে ফিরিয়ে আনতে। কিন্তু এ বিষয়ে মার্কিন নিয়ন্ত্রকরা স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স এত জলদি আকাশে ফেরার অনুমোদন পাচ্ছে না।