১৩ বছর পর নিজেদের মাটিতে সিরিজ জয় পাকিস্তানের।

9
Print Friendly, PDF & Email

স্পোর্টস ডেস্ক রিপোর্টঃ
১০ বছর পর ঘরের মাঠে টেস্ট খেলতে নেমেছিল পাকিস্তান। সিরিজের প্রথম টেস্ট ড্র হলেও দ্বিতীয় টেস্টে বিশাল ব্যবধানে জয় তুলে নিয়েছে আজহার আলীর দল। এই জয়ে ১৩ বছর পর নিজেদের মাটিতে টেস্ট সিরিজ জয়ের স্বাদ পেল পাকিস্তান। ফলে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের টেবিলে তিন নম্বরে উঠে এসেছে দলটি।

করাচি টেস্টে জয়ের জন্য শ্রীলঙ্কাকে ৪৭৬ রানের বিশাল লক্ষ্য ছুঁড়ে দেয় পাকিস্তান। সেই লক্ষ্যে ব্যাটিং করে দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ২১২ রানে অল আউট হয় সফরকারীরা। ২৬৩ রানের বিশাল জয় পায় পাকিস্তান। দলের হয়ে ৩১ রানে পাঁচ উইকেট নেন তরুণ নাসিম শাহ। টেস্ট ইতিহাসের দ্বিতীয় সর্বকনিষ্ঠ বোলার হিসেবে পাঁচ উইকেট নেয়ার কীর্তি গড়েন এই ডানহাতি পেসার।

শেষ দিন ৭ উইকেটে ২১২ রান নিয়ে খেলতে নামে শ্রীলঙ্কা। কিন্তু স্কোরবোর্ডে কোনো রান যোগ না করেই অল আউট হয় সফরকারীরা। ৩ ওভারের মধ্যে বাকি ব্যাটসম্যানদের বিদায় করেন নাসিম শাহ। 

এর আগে চতুর্থ দিন জয়ের লক্ষ্যে ব্যাটিং করতে নেমে স্কোরবোর্ডে ৪০ রান যোগ করতেই অধিনায়ক দিমুথ করুনারত্নে এবং কুশল পেরেরাকে হারিয়ে বসে শ্রীলঙ্কা। এরপর ওপেনার ওশান্ডা ফার্নান্ডো এবং অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ মিলে হাল ধরলেও ১৯ রানে শাহিন শাহ আফ্রিদিকে উইকেট বিলিয়ে দেন ম্যাথুজ।

এরপর ধনঞ্জয় ডি সিলভা এবং দীনেশ চান্দিমালও ফেরেন অল্প রানে। তবে ওপেনার ওশান্ডা ফার্নান্ডোকে সঙ্গে নিয়ে দলকে টেনে নিতে থাকেন নিরোশান ডিকভেলা। তবে তাদের ১০৪ রানের জুটি ভাঙ্গেন হ্যারিস সোহেল। ৬৫ রানে বিদায় নেন ডিকভেলা। 

তবে নিচের সারির ব্যাটসম্যানদের সঙ্গে নিয়ে লড়াই চালিয়ে সেঞ্চুরি তুলে নেন ওশান্ডা ফার্নান্ডো। কিন্তু পঞ্চম দিন ১০২ রানে তাকে বিদায় করেন নাসিম। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে বিশ্ব ফার্নান্ডোকে বিদায় করে পাকিস্তানের জয় নিশ্চিত করেন এই তরুণ। 

এর আগে দ্বিতীয় ইনিংসে ৫ উইকেটে ৫৫৫ রান নিয়ে ইনিংস ঘোষণা করে পাকিস্তান। দলের পক্ষে সেঞ্চুরি হাঁকান চার ব্যাটসম্যান। ওপেনার শান মাসুদ ১৩৫, আবিদ আলী ১৭৪, আজহার আলী ১১৮ এবং বাবর আজম করেন ১০০ রান। 

প্রথম ইনিংসে পাকিস্তান অল আউট হয় মাত্র ১৯১ রানে। আসাদ শফিকের ব্যাট থেকে আসে ৬৩ রান। লাহিরু কুমারা এবং এম্বুলদেনিয়া নেন ৪ উইকেট। জবাবে শ্রীলঙ্কা প্রথম ইনিংসে অল আউট হয় ২৭১ রানে। দীনেশ চান্ডিমাল করেন ৭৪ রান। শাহীন শাহ আফ্রিদি নেন ৫ উইকেট। 

সংক্ষিপ্ত স্কোরঃ

পাকিস্তান প্রথম ইনিংসঃ ১৯১ অল আউট (৫৯.৩ ওভার) (আসাদ শফিক ৬৩) (দিলরুয়ান পেরেরা ৪/৪৯)

শ্রীলঙ্কা প্রথম ইনিংসঃ ২৭১ অল আউট (৮৫.৫ ওভার) (দীনেশ চান্ডিমাল ৭৪) (শাহিন শাহ আফ্রিদি ৫/৭৭)

পাকিস্তান দ্বিতীয় ইনিংসঃ ৫৫৫/৩ (১৩১ ওভার) (আবিদ আলী ১৭৪) (লাহিরু কুমারা ২/১৩৯)

শ্রীলঙ্কা দ্বিতীয় ইনিংসঃ ২১২ অল আউট (৬২.৫ ওভার) (ওশান্ডা ফার্নান্ডো ১০২) (নাসিম ৫/৩১)