চট্টগ্রাম-৮ উপনির্বাচনের আনুষ্ঠানিক প্রচারণা আজ থেকে

7
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ করসপন্ডেন্ট, চট্টগ্রামঃ
চট্টগ্রাম-৮ (বোয়ালখালী-চান্দগাঁও) আসনের উপনির্বাচনে আজ (সোমবার) থেকে আনুষ্ঠানিক প্রচার প্রচারণা শুরু হচ্ছে। রোববার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে দলীয় সিদ্ধান্তে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নিয়েছেন জাতীয় পার্টির প্রার্থী জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু। তাই জয়ের পথে মূল লড়াইয়ে আছেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী মোছলেম উদ্দিন ও বিএনপি প্রার্থী আবু সুফিয়ান।

এদিকে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ প্রার্থী মোছলেম উদ্দিনের সমর্থকরা আজ প্রচার-প্রচারণার প্রথম দিনে ব্যাপক শোডাউনের প্রস্তুতি নিয়েছেন।

অন্যদিকে আনুষ্ঠানিক প্রচার-প্রচারণা শুরুর আগ থেকেই চট্টগ্রাম-৮ আসনের চান্দগাঁও, মোহরা ও ষোলশহর এলাকায় কর্মী সমাবেশ করেছেন বিএনপি প্রার্থী আবু সুফিয়ান।

বেশ আগ থেকেই নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন বিয়ে ও সামাজিক অনুষ্ঠানে এই দুই প্রার্থীর সরব উপস্থিতি চোখ পড়ছে।

বাবলুও পার্টির সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের কথা জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ছয়দিন পর জাতীয় পার্টির কাউন্সিল রয়েছে। সেখানে তাকে বড় দায়িত্ব পালন করতে হবে। তাই পার্টি সিদ্ধান্ত নিয়েছে তিনি নির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত থাকলে সংগঠনের কাজ বাধাগ্রস্ত হবে। এ কারণেই তার সরে যাওয়া।

আগামী ১৩ জানুয়ারি অনুষ্ঠেয় এ নির্বাচনে এখন আওয়ামী লীগের মোসলেহ উদ্দিন আহম্মদ ও বিএনপির আবু সুফিয়ানসহ ছয়জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন। অন্য চারজন হলেন- বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্টের (বিএনএফ) আবুল কালাম আজাদ, ন্যাপের বাপন দাশ গুপ্ত, ইসলামিক ফ্রন্টের ফরিদ উদ্দিন ও স্বতন্ত্র প্রার্থী এমদাদুল হক।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রাম-৮ আসনটি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ৩, ৪, ৫, ৬ ও ৭ নম্বর ওয়ার্ড এবং বোয়ালখালী উপজেলার কধুরখীল ইউনিয়ন, পশ্চিম গোমদন্ডী ইউনিয়ন, পূর্ব গোমদন্ডী ইউনিয়ন, শাকপুরা ইউনিয়ন, সারোয়াতলী ইউনিয়ন, পোপাদিয়া ইউনিয়ন, চরণদ্বীপ ইউনিয়ন, আমুচিয়া ইউনিয়ন ও আহল্লা করলডেঙ্গা ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত।

এই আসনে মোট ভোটার চার লাখ ৭৫ হাজার ৯৮৮। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার দুই লাখ ৪১ হাজার ৯২২ ও নারী ভোটার দুই লাখ ৩৪ হাজার ৭৪ জন। বোয়ালখালী উপজেলায় ভোটার এক লাখ ৬৪ হাজার। কেন্দ্র সংখ্যা ১৮৯টি।

উল্লেখ্য, গত ১ নভেম্বর চট্টগ্রাম-৮ আসনের সংসদ সদস্য জাসদের মঈন উদ্দিন খান ভারতে চিকিতসাধীন অবস্থায় মারা যাবার পর নির্বাচন কমিশন এ আসনে উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে। নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ১৩ জানুয়ারি চট্টগ্রাম-৮ আসনে ১৭০ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে নির্বাচন কমিশন।