বিক্ষোভে উত্তাল ভারত, উত্তর প্রদেশেই নিহত ১৪

9
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্ক:
ভারতে বিতর্কিত সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের প্রতিবাদে উত্তাল ভারত। উত্তর প্রদেশে নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে আন্দোলনকারীদের সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৪ জনে দাঁড়িয়েছে। শনিবার (২১ ডিসেম্বর) বিহারে রাষ্ট্রীয় জনতা দলের ডাকা বন্‌ধ কর্মসূচিতে সহিংসতার ঘটনা ঘটে।

এদিকে, দেশটিতে ১৯৮৭ সালের আগে জন্ম নেয়া সবাই এবং তাদের সন্তান বৈধ অভিবাসী বলে গণ্য হবেন বলে জানিয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

বিহারের রাষ্ট্রীয় জনতা দলের ডাকা বনধ কর্মসূচিতে শনিবার সকাল থেকেই অংশ নেন শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। বিতর্কিত সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসির প্রতিবাদে স্লোগান দেন বিক্ষুব্ধরা। রাজ্যের হাজিপুরসহ বেশ কিছু জায়গায় রেলপথ ও যান চলাচল বন্ধ করে দেয় আন্দোলনকারীরা। কিছু জায়গায় অগ্নিসংযোগের কারণে দুর্ভোগে পড়েন সাধারণ মানুষ। পরিস্থিতি সামাল দিতে মোতায়েন করা হয় অতিরিক্ত পুলিশ।

এদিকে, একই দাবিতে শনিবার ভোরে উত্তর প্রদেশের রামপুরে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এ অবস্থায় নিরাপত্তার অজুহাতে রাজ্য জুড়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও ইন্টারনেট বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে দিল্লির জামিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, কর্ণাটক ও চেন্নাইসহ বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ অব্যাহত আছে।

এরমধ্যে এক বিবৃতিতে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় জানায়, ১৯৮৭ সালের পহেলা জুলাই এর আগে ভারতে জন্ম গ্রহণকারী এবং তাদের সন্তানরা বৈধ অভিবাসী হিসেবে গণ্য হবেন। তাদের নাগরিকত্ব নিয়ে চিন্তার কারণ নেই বলেও জানানো হয়। তবে নাগরিকত্ব আইন কবে থেকে কার্যকর হবে তার দিনক্ষণ নির্ধারিত হয়নি বলেও বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে দেশজুড়ে সহিংস আন্দোলন পরিহারের আহ্বান জানিয়েছেন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি। শনিবার সাংবাদিকের প্রশ্নোত্তরে তিনি এ মন্তব্য করেন।

এদিকে, এ আইনের বিরোধিতা করে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের তীব্র সমালোচনা করেছেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ।