রাজধানীতের সূর্যের দেখা নেই

8
Print Friendly, PDF & Email

মাসুম বিল্লাহ, ঢাকা:
শীতে কাঁপছে সারাদেশ। বিভিন্ন অঞ্চলে আগে ভাগেই শীত চলে আসলেও রাজধানী ঢাকায় এতদিন শীতের ভয়াবহতা খুব একটা অনুভূত হয়নি। তবে বুধবার (১৮ ডিসেম্বর) থেকে রাজধানীতেও বইছে শৈত্যপ্রবাহ। ঠান্ডা বাতাসের সঙ্গে আছে কুয়াশাও। বৃহস্পতিবার বেলা ২টা পর্যন্ত সূর্যের দেখা নেই। যার প্রভাব পড়ছে নগরবাসীর দৈনন্দিন জীবনে।

এদিকে, আবহাওয়া অফিস বলছে, সারাদেশে চলমান মৃদু শৈত্যপ্রবাহ আরও দু’দিন চলতে পারে।

ভোর থেকে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় শীতের তীব্রতা চোখে পড়ছে। সপ্তাহের শেষ কর্মদিবসে একটু দেরিতেই রাস্তায় বের হন মানুষ। তবে এতদিন গরম পোশাকের খুব একটা দরকার না পড়লেও এখন আপাদমস্তক ঢেকেই বের হতে হচ্ছে।

ফল বিক্রেতা সুজন মেহেদী বলেন, গতকাল থেকে হঠাৎ ঠান্ডা বাতাস শুরু হয়েছে। ঢাকায় এমন শীত দেখা যায় না। আজ সকালে তো ঠাণ্ডা আরো বেশি।

তীব্র শীতে সবচেয়ে বেশি ভোগান্তিতে পড়েছেন কর্মজীবী এবং ছিন্নমূল মানুষ। কারওয়ানবাজার এলাকায় রাস্তার পাশে অস্থায়ী তাবুতে রাত কাটানো এক পরিবার জানায়, ছোট ছোট বাচ্চা নিয়ে সারারাত ঠিকমতো ঘুমাতে পারেননি। এই অবস্থা চলতে থাকলে বাচ্চারা অসুস্থ হয়ে পড়বে বলে ভয় তাদের।

এদিকে, একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মী সুলতানা রহমান বলেন, সকালে প্রচণ্ড ঠান্ডা। বিছানা ছাড়তেই মন চাচ্ছিলো না। কিন্তু কি আর করা! চাকরি যেহেতু করি বের তো হতেই হবে। রাস্তায় নেমে দেখি যতটা ভেবেছিলাম তার চেয়ে বেশি শীত। মনে হচ্ছে, চাকরিই ছেড়ে দেই।

একটি রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠানে মোটরসাইকেল চালক আবদুল্লাহ বিন আমান বাপ্পি বলেন, এই ঠাণ্ডা বাতাসে মোটরসাইকেল চালাতে খুবই সমস্যা হচ্ছে। ভয় লাগছে, অসুস্থ হয়ে না পড়ি।

এদিকে, শীত আরো দুদিন থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

বৃহস্পতিবার (১৯ ডিসেম্বর) সকালে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে আবহাওয়াবিদ কাউসার পারভীন বলেন, আগামী ২০ থেকে ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত এ শৈতপ্রবাহ চলবে, আবার একটু ভালো হবে, আবার ২৫ থেকে ২৬ তারিখের দিকে আবার শুরু হতে পারে।

তিনি বলেন, আগামী ২৫-২৬ ডিসেম্বর দেশের কোথাও কোথাও হালকা বৃষ্টি হলে তাপমাত্রা আরো কমে আসবে। আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে আরও একটি শৈত্যপ্রবাহ আসতে পারে।