ভারতে তথ্য পাচারের অভিযোগে পুলিশ সদস্য আটক

9
Print Friendly, PDF & Email

নিউজবিটুয়েন্টিফোর অনলাইন রিপোর্টঃ
পুলিশ সদস্য দেবপ্রসাদ সাহা বেনাপোলে কর্মরত অবস্থায় আটক হয়েছেন। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে ভারতে তথ্য পাচারের।

বাংলাদেশ থেকে তথ্য পাচারের অভিযোগে বেনাপোল পুলিশ ইমিগ্রেশনে কর্তব্যরত থাকা অবস্থায় দেব প্রসাদ সাহাকে আটক করেছে পোর্ট থানার পুলিশ। গত মঙ্গলবার বিকালে ইমিগ্রেশনে দায়িত্বে থাকা অবস্থায় বেনাপোল পোর্ট থানার পুলিশ তাকে আটক করে। যার মামলা নাম্বার ২১। আটক পুলিশ সদস্য দেব প্রসাদসাহা খুলনার তেরখাদা উপজেলা সদরের সুরেন্দ্রনাথ সাহার ছেলে।

আটকের পর গতকাল দেব প্রসাদ সাহাকে যশোর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে সোপর্দ করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন জানানো হয়। বিচারক সাইফুদ্দিন হুসাইন আজ রিমান্ড শুনানির দিন ধার্য করে তাকে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

আটক দেব প্রসাদসাহা বেনাপোল ইমিগ্রেশনে কর্তবরত ছিলেন। ২০১৮ সালের শেষের দিকে দেব প্রসাদ সাহা বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংবলিত একটি পেনড্রাইভ শূন্যরেখা অতিক্রম করে ভারতে পাচার করেন। ১৫ দিন পর তিনি আবু হানজালা রানার কাছ থেকে এনে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সংবলিত পেনড্রাইভ ভারতের এস চক্রবর্তী ও পিন্টুর কাছে হস্তান্তর করেন। গত ২৫ অক্টোবর ঢাকার কমলাপুরের একটি হোটেল থেকে ডিজিএফআই ও র‌্যাবের হাতে সৈনিক শাহানেওয়াজ শাহিন আটক হন। এ সময় তার কাছ থেকে গুরুত্বপূর্ণ একটি পেনড্রাইভ উদ্ধার করা হয়। তিনি ভারতের কাছ তথ্য পাচারের বেশ কিছু তথ্য দেন। পরে বিষয়টি পুলিশ হেড কোয়ার্টারস তদন্ত কমিটি গঠন করে অনুসন্ধানে নামে। তদন্তে তাদের মোবাইল ফোনের কললিস্ট ও ভারতের পুলিশ সুপার আবদুল্লাহ আরেফের সঙ্গে কথোপকথনের ভিডিও সিডির মাধ্যমে ভারতে বাংলাদেশের তথ্য পাচারের বিষয়টি উঠে আসে।

বেনাপোল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামুন খান জানান, বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ভারতে পাচারের অভিযোগে দেব প্রসাদ সাহার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা হয়েছে। তাকে আটক করা হয়েছে। আদালতে সোপর্দ করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন জানানো হয়েছে। রিমান্ড আবেদন মঞ্জুরের পর তাকে এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।