মিয়ানমারের বক্তব্য জোচ্চুরিতে ভরা: গাম্বিয়া

15
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্ক:
আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে মিয়ানমারের বক্তব্য জোচ্চুরিতে ভরা। যুক্তিতর্ক উপস্থাপনে এ কথা বলেন, গাম্বিয়ার আইনজীবীরা। একইসাথে মিয়ানমারের মূল আইনজীবীর ডাবল স্ট্যান্ডার্ড ভূমিকার সমালোচনাও করেন তারা। দাবি জানান, অন্তর্বর্তী নির্দেশনা জারির। শেষ দিনের এই শুনানিতে রাতে পাল্টা যুক্তি খণ্ডন করবে মিয়ানমার।

রোহিঙ্গাদের ওপর গণহত্যা নিয়ে আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে শুনানির শেষ দিনে প্রথমে যুক্ততর্ক পেশ করে গাম্বিয়া। যুক্তি তুলে ধরেন, দেশটির আইনমন্ত্রীসহ চারজন।

অধ্যাপক ফিলিপ স্যান্ডস বলেন, মিয়ানমারে গোপনে গণহত্যা চলছে বলে ২০১৩ সালে আল-জাজিরায় সাক্ষাৎকার দিয়েছিলেন দেশটির মূল আইনজীবী অধ্যাপক সেবাইস। অথচ এখন তিনি উল্টো কথা বলছেন।

মিয়ানমারে গণহত্যার বিষয়ে গাম্বিয়ার আইনি লড়াইয়ের যৌক্তিকতা ব্যাখ্যা করেন, দেশটির আইনমন্ত্রী আবুবকর মারি তামবাড়ু।

আইসিজেকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে নেপিদো। এমন অভিযোগ কোরে অধ্যাপক পিঁয়ের দ্য আর্জেন বলেন, ওআইসির মন্ত্রিসভা কমিটির সিদ্ধান্তের পরই এ মামলা করেছে গাম্বিয়া।

সবচেয়ে বেশি আক্রমণাত্মক ভাষা ব্যবহার করেন অধ্যাপক পল রাইখলার। তিনি মিয়ামারের দেয়া বক্তব্যকে সরাসরি জোচ্চরি আখ্যা দেন।

তিনদিনের এই শুনানি শুরু হয়, গত মঙ্গলবার। যাতে প্রথম দুদিন দুই দেশ নিজেদের বক্তব্য উপস্থাপন করে।