বিতর্ক দিয়েই শুরু হচ্ছে বঙ্গবন্ধু বিপিএল!

11
Print Friendly, PDF & Email

হাসান হাবিবঃ
বিপিএল এবং বিতর্ক শব্দ দুটো যেন সমার্থক হয়ে পড়েছে। বিতর্ক ছাড়া কোন বিপিএল শুরু হওয়ার নজির নেই, শুরুতে নাহলেও টুর্নামেন্টের মাঝপথে ঠিকই কোন ইস্যু তৈরি হবেই। এবারের বিপিএল হচ্ছে নতুন মোড়কে। কোন ফ্র্যাঞ্চাইজি নয় বিসিবি নিজেদের তত্বাবধান ও ব্যবস্থাপনায় আয়োজন করছে এবারের আসর। যার মূল কারণ আগামী বছর বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনে সামিল হওয়া, বিপিএলের আগে জুড়েও দেওয়া হয়েছে বঙ্গবন্ধুর নাম। অথচ মাঠের লড়াই শুরুর আগেই বিতর্কিত বঙ্গবন্ধু বিপিএল।

টুর্নামেন্ট শুরুর বেশ আগেই বিসিবি পরিচালক মাহবুব আনাম ঘোষণা দিয়ে বসেন এবারের বিপিএল বঙ্গবন্ধুর নামে ও বিসিবির তত্বাবধনে হচ্ছে বলে লাভ-লোকশানের হিসাব কষবেন না তারা। পরে একই কথা গণমাধ্যমে জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনও। স্থানীয় ক্রিকেটারদের প্রাপ্য সুযোগ প্রদান ও আগামী বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মাথায় রেখে কিছু বাধ্যবাধকতাও আনছেন বলে জানান। যার দুটি হল একজন লেগ স্পিনার ও ১৪০ এর বেশি গতিতে বল করতে পারা পেসার একাদশে রাখা।

এরপর বিপিএল ইস্যুতে দফায় দফায় গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য, বিসিবি সভাপতি নিশ্চয়তা দিয়েছেন এই বাধ্যবাধকতা বহাল থাকছে। সবশেষ গত ৫ ডিসেম্বর বিসিবি সভাপতি জানান, ‘হ্যা গাইডলাইনটা এমনই। আসলে টুর্নামেন্ট শুরু হলে বুঝতে পারবো কতটা প্রয়োগ হচ্ছে। আমরা চেয়েছি একজন ভালো মানের লেগ স্পিনার ও একজন ভালো গতির পেসার যে ১৪০ কি.মি এর বেশি গতিতে বল করতে পারে যেন খেলানো হয়। আমার ধারণা খেলাবে, বেশিরভাগ ম্যাচেই এটা হবে।’

অথচ টুর্নামেন্ট শুরুর একদিন আগেই এমন বিষয় সরাসরি অস্বীকার করে বসলেন রংপুর রেঞ্জার্সের নয়া পরিচালক এনায়েত হোসেন সিরাজ। দলটির স্পন্সর প্রতিষ্ঠানের পরিচালক হওয়ায় রাজশাহী রয়্যালস ছেড়ে যোগ দিয়েছেন রংপুর রেঞ্জার্সে। আগে থেকে দলের পরিচালক থাকা আকরাম খানের ঠিকানা হয়ে পড়েছে অনিশ্চিত। আজ (১০ ডিসেম্বর) রংপুর রেঞ্জার্সের জার্সি উন্মোচন অনুষ্ঠানে একাদশে লেগ স্পিনার ও ১৪০ কিমি গতির পেসার খেলানো হবে কিনা জানতে চাইলে অনেকটা কড়া সুরে কথা বলেন এনায়েত হোসেন সিরাজ।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি একটা কথা বলি ১৪০ কিমি গতির বোলার খেলাতে হলে সে ধরণের উইকেটও নিশ্চয়ই বানিয়েছে। টিম কম্বিনেশন দেখতে হবে, আমরা লেগ স্পিনার প্রাধান্য দিব। এটা প্রাধান্য দেওয়া, বুঝতে পারছেন? আমি মনে করি এ ধরণের (বাধ্যবাধকতা) কোন নিয়মই নেই। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড প্রাধান্য দিতে বলেছে আর সে অনুযায়ী আমরা লেগ স্পিনার যুক্ত করার চেষ্টা করেছি।’

তার মতে প্রাধান্য দেওয়ার কথা বলা হয়েছে, কখনোই বাধ্যবাধকতা কিংবা এমন কোন নিয়মের উল্লেখ ছিলনা, ‘এটা প্রাধান্য দেওয়া, কোন নিয়ম নয়। আমাদের অভিজ্ঞ লেগ স্পিনারের ঘাটতি আছে। এটা প্লেয়িং কন্ডিশনের উপর নির্ভর করছে। আরে আমরা তো বলছি লেগ স্পিনার খেলানোর জন্য চেষ্টা করছি জাতীয় ক্রিকেটের স্বার্থে।’

এদিকে হুট করে রাজশাহী ছেড়ে রংপুরের সাথে যুক্ত হলেন এনায়েত হোসেন সিরাজ। কিন্তু টুর্নামেন্ট শুরুর কয়েক ঘন্টা আগেও নিশ্চিত নয় তার ছেড়ে আসা জায়গায় কে হচ্ছেন নতুন পরিচালক। এদিকে শুরু থেকেই রংপুরের সাথে থাকা আকরাম খানের ঠিকানাও অনিশ্চিত তবে রংপুর রেঞ্জার্স ও ইনসেপ্টার পরিচালক বলছেন আপাতত তার সাথেই থাকছেন আকরাম।

‘এটা একটা ঘটনা চক্র যে আমি যেহেতু ইনসেপ্টার স্বত্বাধিকারী। যেহেতু আমাদের দল যখন অংশ নিচ্ছে বঙ্গবন্ধু বিপিএলে সেখানে তো আমাদের একটা ভূমিকা থাকবেই দলে। এই দলে আকরাম ছিল আমি ছিলাম রাজশাহীতে। আমাদের বোর্ড থেকে সিদ্ধান্ত হয়েছে আমি এখানে চলে আসবো। ওখানে কে যাবে সেটা আমি জানিনা, আকরাম এখন আমার সাথেই আছে যদি অন্য কোথাও না যায়। যেহেতু সেই দলটা করেছে।’