আওলাদকে ভুয়া ওয়ারেন্টে জড়ানোর ঘটনা তদন্তের নির্দেশ

9
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ করসপন্ডেন্ট, ঢাকা:
গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রোগ্রাম অফিসার আওলাদ হোসেনকে ভুয়া ওয়ারেন্টে জড়ানোর ঘটনা তদন্ত করতে সিআইডিকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

মঙ্গলবার (১০ ডিসেম্বর) বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ রিটের প্রাথমিক শুনানি শেষে রুলসহ এ আদেশ দেন।

আদালত জানায়, একই সঙ্গে ১৫ জানুয়ারি আদালতে তার উপস্থিতি নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। জামিনে থাকলে তিনি নিজে আদালতে হাজির হবেন, আর কারাগারে থাকলে কারা কর্তৃপক্ষ তাকে হাজির করবেন।
একের পর এক গ্রেপ্তারি পরোয়ানা দেখিয়ে এক কারাগার থেকে আরেক কারাগারে এবং এক আদালত থেকে অন্য আদালতে হাজির করার প্রেক্ষাপটে আওলাদের স্ত্রী শাহনাজ পারভিন গত রোববার হাইকোর্টে একটি রিট করেন।

আজ আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী জয়নুল আবেদীন। তার সঙ্গে ছিলেন আইনজীবী এমাদুল হক বশির।
রাষ্ট্রপক্ষে শুনানিতে অংশ নেন ডেপুটি আটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।

আওলাদের আইনজীবী জানান, বর্তমানে শেরপুর কারাগারে একটি সিআর মামলায় তিনি কারাগারে আছেন। ওই মামলায় আওলাদের বিরুদ্ধে জারি করা ওয়ারেন্ট সঠিক কি না, তা যাচাই সাপেক্ষে তাকে জামিন দিতে শেরপুরের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি তার ক্ষেত্রে ইস্যু করা ওয়ারেন্ট সঠিক কি না, তা যাচাই সাপেক্ষে তাকে মুক্তি দিতে বলা হয়েছে। এছাড়া অপর কোনো মামলায় আওলাদের বিরুদ্ধে ইস্যু করা ওয়ারেন্ট সঠিক কি না, কারা কর্তৃপক্ষকে তা যাচাই সাপেক্ষে তাকে মুক্তি দিতে বলা হয়েছে। ১৫ জুনায়ারি পরবর্তী শুনানির জন্য বিষয়টি কার্যতালিকায় আসবে।

আওলাদ হোসেনকে বেআইনিভাবে আটক রাখা হয়নি, তা নিশ্চিতের জন্য তাকে কেন হাইকোর্টে হাজির করা হবে না- তা জানতে চাওয়া হয়েছে রুলে।