সিরাজগঞ্জে আওয়ামী লীগ-বিএনপির সংঘর্ষ, আহত ৫০

13
Print Friendly, PDF & Email

সিরাজগঞ্জ থেকে করেসপন্ডেন্ট:
সিরাজগঞ্জ জেলা শহরে পৃথক কর্মসূচি পালন করার সময় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সঙ্গে বিএনপির নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ, হামলা-পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ৫০ জন আহত হয়েছেন।

রোববার (৮ ডিসেম্বর) দুপুরে সংঘর্ষের এই ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, সিরাজগঞ্জ সরকারি কলেজের আয়োজনে রোববার বিজয় র‌্যালি ছিল। র‌্যালিতে অংশ নেন সিরাজগঞ্জ-২ (সদর-কামারখন্দ) আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ডা. হাবিবে মিল্লাত মুন্নাসহ দলীয় নেতাকর্মীরা। র‌্যালিটি কলেজ প্রাঙ্গণ থেকে শুরু হয়ে ইবি রোড এলাকায় এলে বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

একইদিন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সিরাজগঞ্জে ভাসানী মিলনায়তন চত্বরে বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে জেলা বিএনপি। এ কারণে শহরে বিএনপি নেতাকর্মীদের জটলা ছিল।

একপর্যায়ে উভয় দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে অন্তত ৫০ জন আহত হয়েছেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সংঘর্ষ চলাকালে জেলা বিএনপির কার্যালয়ে ভাঙচুর ও আগুন লাগানোর ঘটনা ঘটেছে। সেখানেও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট ছোড়ে।

পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি হেলাল উদ্দিন বলেন, ‘বিজয় র‌্যালিটি কলেজ থেকে শুরু হয়ে ইবি রোড এলাকায় পৌঁছলে বিএনপির নেতাকর্মীরা হামলা চালায়। এতে সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নাসিম রেজা নুর দীপু, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি রাসেল আহমেদসহ বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হন। শহরের বিভিন্ন হাসপাতাল ও ক্লিনিকে আহতদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে বলে দাবি করেন পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি।

সংঘর্ষের বিষয়ে সিরাজগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ দাউদ জানান, শহরে পৃথক কর্মসূচি চলাকালে আওয়ামী লীগ-বিএনপির কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। পুলিশ টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নেয়। বর্তমানে সেখানকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।