আ.লীগের সম্মেলন মঞ্চ চারদিন উন্মুক্ত থাকবে

7
Print Friendly, PDF & Email

সিনিয়র করসপন্ডেন্ট ঢাকা:
জাতীয় সম্মেলন সামনে রেখে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে সম্মেলন মঞ্চের সাজ-সজ্জার সকল প্রস্তুতি শেষ করবে আওয়ামী লীগ। এরপর ১৬ ডিসেম্বর থেকে চার দিন সাধারণ মানুষের জন্য এই মঞ্চ উন্মুক্ত রাখা হবে।

তবে এবারের সম্মেলনে অন্যান্য বারের মতো জাকজমক পূর্ণ হবে না। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেষ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী এবং সরকার ঘোষিত মুজিববর্ষের কাউন্টডাউন শুরু হওয়ায় অনেকটা সাদামাটা পরিবেশেই অনুষ্ঠিত হবে জাতীয় সম্মেলন। যতোটুকু সাজসজ্জা, আলোকসজ্জা এবং ব্যানার-ফ্যাস্টুন দেখা যাবে তার সবটুকুই সীমাবদ্ধ থাকবে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের অভ্যন্তরেই।

আওয়ামী লীগের সম্মেলনের মঞ্চ ও সাজসজ্জা উপ-কমিটির সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

আগামী ২০ ডিসেম্বর বিকেল ৩টায় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জাতীয় সম্মেলনের উদ্বোধন হবে এবং ২১ ডিসেম্বর সকালে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন প্রাঙ্গণে কাউন্সিল অধিবেশন হবে।

জানা গেছে, সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে লেকের পাশে বিশাল নৌকা আকৃতির মঞ্চ তৈরি করা হবে। এছাড়া, উদ্যানে প্রবেশের গেটে তৈরি করা হবে বড় বড় তোরণ। গত নভম্বের মাসে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের যে মঞ্চে চারটি সংগঠনের সম্মেলন ও ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে, সেই মূল মঞ্চটি ভেঙে ফেলে নতুন করে নৌকাসদৃশ বিশাল আকৃতির মঞ্চ তৈরি করা হবে। মঞ্চের সামনে মূল প্যান্ডেলের পরিসরও বৃদ্ধি করা হবে।

সম্মেলনে আওয়ামী লীগ সররকারের গত মেয়াদে উন্নয়ন চিত্র তুলে ধরা হবে। পাশাপাশি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনাসহ জাতীয় চার নেতাদের ছবি সংবলিত বিভিন্ন ব্যানার-ফেস্টুন-পোস্টার ও বিলবোর্ডে সজ্জিত করা হবে।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং মঞ্চ ও সাজসজ্জা উপ-কমিটির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক জানান: আগামী ৮ ডিসম্বের থেকে মুজিব বর্ষের কাউন্টডাউন শুরু হবে। সেজন্য এবার আমাদের জাতীয় সম্মেলনে আমরা কেবল সোহরাওয়ার্দী উদ্যানেই সম্মেলন সাজসজ্জা সীমাবদ্ধ থাকবে।

২০১৬ সালের ২২ ও ২৩ অক্টোবর ২০১৬ সালে সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ও ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন প্রাঙ্গণে আওয়ামী লীগের ২০তম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছিল।