ফরজ নামাজের পরের আমলঃ ০২

26
Print Friendly, PDF & Email

ইসলামিক নিউজ ডেস্কঃ
ফরজ নামাজের পরে কিছু আমল রয়েছে। সময় কম লাগলেও এর লাভ যেন এক কথায় অভূতপূর্ব! সুন্নাহ মোতাবেক সেই আমল গুলো করাও প্রতিটি মুসলমানের জন্য জরুরী।

হযরত আবু উমামা(রাঃ) হতে বর্ণিত আছে যে, রাসূল(সাঃ) বলেছেন, যে ব্যক্তি প্রতি ফরয নামাজের পর আয়াতুল কুরসী পড়ে নিবে তাহার জান্নাতে প্রবেশ করতে শুধু মৃত্যুই বাধাস্বরুপ। অন্য আরেক বর্ণ্নায় আয়াতুল কুরসীর সাথে সূরা ইখলাসের কথাও বলা হয়েছে। (তাবারানী, মাজমায়ে যাওয়ায়েদ)
হযরত হাসান ইবনে আলী(রাঃ) বলেন, নবী(সাঃ) বলেছেন, যে ব্যক্তি ফরয নামাজের পর আয়াতুল কুরসী পড়ে নেয়, সে পরবর্তী নামাজ পর্যন্ত আল্লাহর(সুঃতাঃ)হেফাজতে থাকে। (তাবারানী, মাজমায়ে যাওয়ায়েদ)

কি অপূর্ব ফাজায়েল! মাত্র কয়েক সেকেন্ডের আমলে এত লাভ আল্লাহ দিয়েছেন! আমরা সকলেই এই আমল করার চেষ্টা করি।

اللّهُ لاَ إِلَهَ إِلاَّ هُوَ الْحَيُّ الْقَيُّومُ لاَ تَأْخُذُهُ سِنَةٌ وَلاَ نَوْمٌ لَّهُ مَا فِي السَّمَاوَاتِ وَمَا فِي الأَرْضِ مَن ذَا الَّذِي يَشْفَعُ عِنْدَهُ إِلاَّ بِإِذْنِهِ يَعْلَمُ مَا بَيْنَ أَيْدِيهِمْ وَمَا خَلْفَهُمْ وَلاَ يُحِيطُونَ بِشَيْءٍ مِّنْ عِلْمِهِ إِلاَّ بِمَا شَاء وَسِعَ كُرْسِيُّهُ السَّمَاوَاتِ وَالأَرْضَ وَلاَ يَؤُودُهُ حِفْظُهُمَا وَهُوَ الْعَلِيُّ الْعَظِيم

অনুবাদঃ আল্লাহ ছাড়া অন্য কোনো উপাস্য নেই, তিনি জীবিত, সবকিছুর ধারক। তাকে তন্দ্রাও স্পর্শ করতে পারে না এবং নিদ্রাও নয়। আসমান ও যমীনে যা কিছু রয়েছে, সবই তার। কে আছ এমন, যে সুপারিশ করবে তার কাছে তার অনুমতি ছাড়া? দৃষ্টির সামনে কিংবা পিছনে যা কিছু রয়েছে সে সবই তিনি জানেন। তার জ্ঞানসীমা থেকে তারা কোনো কিছুকেই পরিবেষ্টিত করতে পারে না, কিন্তু যতটুকু তিনি ইচ্ছা করেন। তার সিংহাসন সমস্ত আসমান ও যমীনকে পরিবেষ্টিত করে আছে। আর সেগুলোকে ধারণ করা তার পক্ষে কঠিন নয়। তিনিই সর্বোচ্চ এবং সর্বাপেক্ষা মহান।