কোভিড-১৯ প্রণোদনা বিলে সই করলেন ট্রাম্প

২৮ই ডিসেম্বর, ২০২০ || ১০:০৩:৩১
8
Print Friendly, PDF & Email

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্ক:
অবশেষে মত পাল্টালেন বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। নভেল করোনাভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্তদের আর্থিক সহায়তা দিতে আলোচিত প্রণোদনা বিলে স্বাক্ষর করেছেন। বিলটি এখন আইনে পরিণত হবে। সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

কয়েক মাসের দীর্ঘ আলোচনার পর গত সোমবার মার্কিন কংগ্রেস বিলটি (২১ ডিসেম্বর) পাস করে। করোনায় ক্ষতিগ্রস্তদের আর্থিক সহায়তা দিতে প্রায় ৯০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ত্রাণ প্যাকেজের বিল অনুমোদন করে কংগ্রেস। এই বিলটি মোট ২ দশমিক ৩ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয় প্যাকেজের অংশ। এর মধ্যে কেন্দ্রীয় সরকারের সাধারণ ব্যয় বাবদ বরাদ্দ রাখা হয়েছে ১ দশমিক ৪ ট্রিলিয়ন মার্কিন ডলার।

কংগ্রেস বিলটি পাস করার পর এতে সই করতে গড়িমসি করেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বিলটির সংশোধন চান বলে জানান। এমনকি প্যাকেজ থেকে ‘অপ্রয়োজনীয় ও অপব্যয়ের খাত’ বাদ না দিলে তাতে স্বাক্ষর না করার হুমকিও দেন তিনি।

এ ছাড়া বিলে প্রত্যেক আমেরিকানকে ৬০০ ডলার করে এককালীন দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। ট্রাম্প এটি বাড়িয়ে দুই হাজার ডলার করার প্রস্তাব দেন।

সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, ত্রাণ প্যাকেজ থেকে ২৮৪ বিলিয়ন ডলার যাবে ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের ঋণ পরিশোধে। ব্যক্তি উদ্যোগের মুভি থিয়েটার ও সাংস্কৃতিক প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে ১৫ বিলিয়ন ডলার।

এ ছাড়া এই বিলে করোনার টিকা কিনতে এবং করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষায় ২০ বিলিয়ন ডলার করে বরাদ্দ রাখা হয়েছে। আর টিকার বণ্টনের জন্য রয়েছে আট বিলিয়ন ডলার।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো পাবে ৮২ বিলিয়ন ডলার। আর, শিশুদের যত্নে নিয়োজিত প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য রাখা হয়েছে ১০ বিলিয়ন ডলার। এ ছাড়া শিশুর পুষ্টি খাদ্যে ব্যয় ধরা হয়েছে ১৩ বিলিয়ন ডলার।

যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে নিশ্ছিদ্র ইন্টারনেট ব্রডব্যান্ড সেবা চালু রাখতে সাত বিলিয়ন ডলার ব্যয় হবে। আর পরিবহণ ও যোগাযোগ খাতের জন্য রয়েছে ৪৫ বিলিয়ন ডলার।